মুজিব বর্ষ পালন করবেননা যদি অতিথি হিসেবে মোদি আসে

মুজিব বর্ষ

ভারতের প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যদি মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ আসে তবে বাংঙ্গালিরা মুজিব বর্ষ পালন করবেনা।

নরেন্দ্র মোদি

ভারতে বিশেষ করে দিল্লিতে মুসলমানদের যেভাবে নির্যাতন, আঘাত, যখম ও হত্যা করা হচ্ছে তা শুধু সম্প্রদায়-সম্পর্কিত নয়, বরং মানবতা বিরোধী এবং বিশ্বাসঘাতক । আর এই মানবতা বিরোধী কার্যকম এর মূল হুতা হচ্ছে নরেন্দ্র মোদী। প্রধান মন্ত্রী এবং অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট প্রধান হিসেবে এই দাঙ্গা-হাংঙ্গামা বন্ধ ত দূরের কথা বরং এই দাঙ্গা উসকে দিচ্ছেন সে। দিল্লির এই অত্যাচার ও হত্যাযজ্ঞ ছাড়াও মোদী যে কতটা হিন্দুত্ববাদী ও মুসলিম বিদ্বেষি তা তার দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর আরো পরিষ্কার হয়ে গেছে। এই ধরণের ব্যক্তি কখনোই কারো আদর্শ হতে পারেনা।

বাঙালির ইতিহাসের শ্রেষ্ট রাষ্টনায়ক ও দুর্সাহসিক নেতা বাঙালি জাতির জনক শেখ মুজিবের শততম জন্মবার্ষিকি হিসিবে আওয়ামি লীগ এবং বর্তমান সরকার ‘মুজিব বর্ষ’ পালন করার সিদ্বান্ত নিয়েছে । যা উপলক্ষে ইতিমধ্যেই নেয়া হয়েছে পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি। বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবের জন্মশত বার্ষিকী স্বরনীয় করে রাখতে বাঙ্গালীরা অপেক্ষামান কিন্তু এই উৎসাহে ভাটা পরেছে এইটা শুনে যে শেখ মুজিবের আদর্শের সম্পূর্ণ বিপরীত আদর্শের অধিকারী নরেন্দ্র মোদী এই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আসছে।

বঙ্গ বন্ধু ছিলেন মানব-দরদী, অসাম্প্রদায়িক । তিনি যেমন জনপ্রিয় ছিলেন সংখ্যাগরীষ্ঠ দের মাঝে তেমনি জনপ্রিয় ছিলেন সংখ্যালঘুদের নিকট। তিনি বাঙ্গালীর উপর পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর নির্যাতন এবং হত্যার বিরুদ্ধে ১৯৭১ সালে যুদ্ধ ঘোষনা করেছিলেন। শেখ মুজিবুর রহমান “বঙ্গ বন্ধু” উপাধিটি পেয়েছিলেন বাংলার মানুষের প্রতি তার দরদ এবং ভালবাসার জন্য।

শেখ মুজিবুর রহমান যেখানে ছিলেন মানব দরদী সেখানে নরেন্দ্র মোদী হলেন সন্ত্রাসী, শেখ মুজিবুর রহমান যেখানে ছিলেন অসাম্প্রদায়িক সেখানে নরেন্দ্র মোদী হলেন কট্টর হিন্দুবাদী এবং মুসলিম বিদ্বেষী, শেখ মুজিবুর রহমান যেখানে ছিলেন শান্তি প্রিয় সেখানে নরেন্দ্র মোদী হলেন কলহ ও দাঙ্গাবাদী।

বাঙালি জাতির জনক শেখ মুজিবের শততম জন্মবার্ষিকি হিসেবে আওয়ামি লীগ সরকার নরেন্দ্র মোদীকে মুজিব বর্ষে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রন জানালেও বাংলার আমজনতা তার বিরোধী। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বিপরীত মনোভাব বিশিষ্ট, এক জঘন্য ও ঘৃণ্য চরিত্রের অধিকারী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রন জানানো বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর সম্পূর্ণ সুন্দর্য নষ্ট করবে।

অনেক আমজনতার মতে তারা এই জন্মশতবার্ষিকী পালন করবেনা যদি নরেন্দ্র মোদী বাংলার জমিনে বাংলার সর্বকালের জনপ্রিয় ব্যাক্তির জন্মশত বার্ষিকিতে অতিথি হিসেবে আসে। বরং তার আসা বঙ্গবন্ধুর জন্য অসম্মান জনক ও বটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *